Monday , June 25 2018
Home / আন্তর্জাতিক / সন্ত্রাস রোখার দায় একা পাকিস্তানের নয়: চিন

সন্ত্রাস রোখার দায় একা পাকিস্তানের নয়: চিন

সন্ত্রাস ইস্যুতে ফের পাকিস্তানের পাশে দাঁড়াল চিন। জঙ্গিদের পাকিস্তান প্রশ্রয় দিচ্ছে বলে যে অভিযোগ জোর দিয়ে তুলেছে আমেরিকা, তার সঙ্গে চিন সহমত নয়— সোমবার জানিয়েছেন চিনা বিদেশ মন্ত্রকের মুখপাত্র লু ক্যাং।

নতুন বছরের প্রথম দিন থেকেই সন্ত্রাস ইস্যুতে পাকিস্তানের উপরে চাপ বাড়িয়েছে আমেরিকা। প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প টুইট করে বলেছেন, ‘‘গত ১৫ বছর ধরে আমেরিকা বোকার মতো পাকিস্তানকে ৩৩০০ কোটি ডলারেরও বেশি আর্থিক সহায়তা দিয়েছে এবং তারা মিথ্যাচার এবং প্রতারণা ছাড়া কিছুই আমাদের দেয়নি, আমাদের নেতাদের তারা বোকা ভেবেছে। তারা সেই সব সন্ত্রাসবাদীকে নিরাপদ আশ্রয় দেয়, যাদের বিরুদ্ধে আমরা আফগানিস্তানে লড়ছি…। আর নয়!’’

ট্রাম্পের এই টুইটের পরেই মার্কিন প্রশাসন কঠোর পদক্ষেপ করেছে। পাকিস্তানকে প্রদেয় প্রায় ১১৫ কোটি মার্কিন ডলারের অনুদান আমেরিকা বাতিল করে দিয়েছে। সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে যতক্ষণ না সন্তোষজনক পদক্ষেপ করছে ইসলামাবাদ, ততক্ষণ পাকিস্তানকে সামরিক খাতে আর্থিক সহায়তা দেওয়ার প্রশ্নই নেই। জানিয়েছে ওয়াশিংটন ডিসি।

আমেরিকা যতই কঠোর বার্তা দিক, সন্ত্রাস প্রশ্নে ফের পাকিস্তানের পাশে দাঁড়াল চিন।

পাকিস্তানের ঘনিষ্ঠতম মিত্র চিন এ বার প্রকাশ্যেই আমেরিকার অবস্থানের বিরুদ্ধে মন্তব্য করতে শুরু করল। চিনা বিদেশ মন্ত্রকের মুখপাত্র লু ক্যাং সোমবার বলেছেন, ‘‘চিন বরাবরই নির্দিষ্ট করে কোনও একটি দেশের নামকে সন্ত্রাসবাদের সঙ্গে জুড়ে দেওয়ার বিরোধী এবং কোনও একটি দেশের ঘাড়ে সন্ত্রাস বিরোধিতার যাবতীয় দায়দায়িত্ব চাপিয়ে দেওয়া যায় বলে আমরা মনে করি না।’’

হোয়াইট হাউজের এক কর্তা সম্প্রতি বলেছেন, সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ করার জন্য পাকিস্তানকে রাজি করানোর ক্ষেত্রে চিন গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা নিতে পারে। সোমবার সেই সংক্রান্ত প্রশ্নের জবাবই দিচ্ছিলেন লু ক্যাং। তিনি বলেন, ‘‘সন্ত্রাস বিরোধিতার স্বার্থে পাকিস্তান যে উল্লেখযোগ্য আত্মত্যাগ এবং অবদান রেখেছে, সে কথা আমরা বহু বার জোর দিয়ে বলেছি।’’ লু ক্যাং আরও বলেন, ‘‘পরস্পরের দিকে আঙুল তোলার বদলে একে অপরের প্রতি শ্রদ্ধা রেখে সন্ত্রাস বিরোধী সহযোগিতা বাড়িয়ে তোলা উচিত।’’ সন্ত্রাসের প্রশ্রয়দাতা হিসেবে কোনও দেশকে চিহ্নিত করা সন্ত্রাস বিরোধী লড়াইয়ের জন্য সহায়ক নয় বলেও চিনা বিদেশ মন্ত্রক এ দিন মন্তব্য করেছে।

এন২৪এন/এবি

Check Also

কিম-মুনের বৈঠক ছাপিয়ে ঠান্ডা নুডলসে তোলপাড়

উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং উন যুদ্ধবিরতি রেখা অতিক্রম করে দক্ষিণ কোরিয়ায় প্রবেশ করে ইতিহাস …