Monday , June 25 2018
Home / ক্যাম্পাস / ‘ভাই ভুল হয়েছে, সরি’ বলে এসএমএস পাঠিয়েছে

‘ভাই ভুল হয়েছে, সরি’ বলে এসএমএস পাঠিয়েছে

নেহাতেই তুচ্ছ ঘটনার জের ধরে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের (জাবি) মাস্টার্সের ২ শিক্ষার্থীকে মারধর করার অভিযোগ উঠেছে ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি ও জাবি শাখার সাবেক সাধারণ সম্পাদক রাজিব আহমেদ রাসেলের বিরুদ্ধে। বুধবার (২৭ ডিসেম্বর) দুপুরে বিশ্ববিদ্যালয়ের আ ফ ম কামালউদ্দিন হলের সামনে এ ঘটনা ঘটে। মারধরের শিকার শিক্ষার্থীরা হলেন শিবলু ও বিপুল। তারা উভয়েই বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিসংখ্যান বিভাগের মাস্টার্সের (৪১তম আবর্তন) শিক্ষার্থী।

বিষয়টি মীমাংসার নামে উল্টো মারধরের শিকার দুই শিক্ষার্থীকে রাজিবের কাছে ক্ষমা চাইতে বাধ্য করা হয়েছে। এমনকি প্রকাশ্যে মারধরের শিকার একজনকে কান ধরে উঠবসও করানো হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, রাজিব আহমেদ রাসেল প্রাইভেটকারে হলের সামনের তিন রাস্তার মোড় অতিক্রম করছিল। এ সময় গাড়ির সামনে দিয়ে ওই ২ শিক্ষার্থী ও সাইফুল নামে আরেকজন হেঁটে যাচ্ছিলেন। রাজিব গাড়ির হর্ণ বাজানোর পর তাদের রাস্তা থেকে সরতে দেরি হওয়ায় গাড়ি থেকে নেমে রাজিব তাদেরকে চড়-থাপ্পড় মারতে থাকেন।

এ সময় রাজিবের সঙ্গে বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি নিয়ামুল হাসান তাজও তাদের মারধর করেন। ঘটনাস্থলে সাধারণ শিক্ষার্থীরা জড়ো হলে বিষয়টি ভুল বোঝাবুঝি হয়েছে বলে সবাইকে সরিয়ে দেয়া হয়। মারধরের শিকার শিক্ষার্থীদের কাছে জানতে চাইলে ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে আর কোনো মন্তব্য করতে রাজি হননি তারা।

জাবি ছাত্রলীগের সভাপতি জুয়েল রানা বলেন, ছোট ভাইদের সঙ্গে রাজিব ভাইয়ের বাকবিতণ্ডা হয়েছে। তবে আমরা নিজেরাই বিষয়টি মিটিয়ে নিয়েছি। এ ব্যাপারে ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি ও জাবি শাখার সাবেক সাধারণ সম্পাদক রাজিব আহমেদ রাসেল কোনো মন্তব্য করতে রাজি হননি।

তিনি বলেন, সেখানে তেমন কোনো ঘটনা ঘটেনি যে সাংবাদিকদের কাছে মন্তব্য দিতে হবে। বরং উল্টো তারাই আমাকে ‘ভাই ভুল হয়েছে, সরি’ বলে এসএমএস পাঠিয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক তপন কুমার সাহা বিডি২৪লাইভকে বলেন, অভিযোগ পেলে তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Check Also

ঢাবিতে পুরুষ অধ্যাপকের রুমের তালা ভেঙ্গে নারী প্রভাষক উদ্ধার

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের একজন সহকারী অধ্যাপকের কক্ষের তালা ভেঙে সেখান থেকে অন্য বিভাগের এক নারী প্রভাষককে …