Monday , August 21 2017
Breaking News
Home / খেলাধুলা / বিশ্বের একমাত্র হাফেজ ক্রিকেটার সরফরাজ, কোরআনের মাসে তার হাতে উঠলো ট্রফি

বিশ্বের একমাত্র হাফেজ ক্রিকেটার সরফরাজ, কোরআনের মাসে তার হাতে উঠলো ট্রফি

x
Loading...
Loading...
Loading...

গ্রুপ পর্বের ম্যাচে পাকিস্তানকে যেভাবে হেলায় হারিয়েছিল ভারত তাতে অনেকেই ভেবে নিয়েছিলেন যে শিরোপা ভারতই ঘরে তুলবে। কিন্তু না। ফাইনাল ম্যাচে তার সম্পূর্ণ উল্টা হলো। রবিবার লন্ডনের কেনিংটন ওভালে ব্যাটে ও বলে জ্বলে উঠলো পাকিস্তানের খেলোয়াড়রা। বিশ্বের একমাত্র হাফেজ ক্রিকেটার সরফরাজ, কোরআনের মাসে তার হাতে ট্রফি। অধিনায়ক দূরে থাক বর্তমান বিশ্বে জাতীয় দলে আর কোনো হাফেজে কোরআন নেই।

ওই ম্যাচে ভারতকে লজ্জায় ডুবিয়ে প্রথমবারের মতো আইসিসি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির শিরোপা ঘরে তুললো পাকিস্তান। এদিন ভারতকে ১৮০ রানের বিশাল ব্যবধানে হারালো তারা। এবার চতুর্থবারের মতো চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির ফাইনাল খেলেছে ভারত। গত আসরে ইংল্যান্ডকে পাঁচ রানে হারিয়ে শিরোপা ঘরে তুলেছিল মহেন্দ্র সিং ধোনির ভারত।

আজ ভারতের দেয়া ৩৩৯ রানের জয়ের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে ৩০.৩ ওভারে ১৫৮ রান সংগ্রহ করে অলআউট হয়ে যায় ভারত। দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৭৬ রান করেন হার্দিক পান্ডিয়া। পাকিস্তানের পক্ষে মোহাম্মদ আমির ৩টি, জুনায়েদ খান ১টি, হাসান আলী ৩টি ও শাদব খান ২টি করে উইকেট নেন।

ভারত আজ ইনিংসের শুরু থেকেই চাপে ছিল। ইনিংসের প্রথম ওভারের তৃতীয় বলে রোহিত শর্মাকে এলবিডব্লিউয়ের ফাঁদে ফেলেন মোহাম্মদ আমির। গত ম্যাচে সেঞ্চুরি করা রোহিত শর্মা আজ ফেরেন ব্যক্তিগত শূন্য রান করে। এরপর ইনিংসের তৃতীয়

ওভারের চতুর্থ বলে শাদব খানের হাতে ক্যাচ বানিয়ে ‘ভয়ঙ্কর’ বিরাট কোহলিকে ফিরিয়ে দেন আমির। গত ম্যাচে ৯৬ রান করে অপরাজিত থাকা কোহলি আজ ফেরেন মাত্র ৫ রান করে।

এরপর ইনিংসের নবম ওভারের শেষ বলে উইকেটরক্ষকের হাতে ক্যাচ বানিয়ে শিখর ধাওয়ানকে ফিরিয়ে দেন মোহাম্মদ আমির। তারপর ইনিংসের ১৩তম ওভারের শেষ বলে যুবরাজ সিংকে এলবিডব্লিউয়ের ফাঁদে ফেলেন শাদব খান। ফেরার আগে ৩১ বল খেলে ২২ রান করেন তিনি।

এর পরের ওভারেই ইমাদ ওয়াসিমের হাতে ক্যাচ বানিয়ে মহেন্দ্র সিং ধোনিকে ফেরান হাসান আলী। ১৬ বল খেলে চার রান করেন ধোনি। ইনিংসের ১৭তম ওভারে শাদব খানের বলে শরফরাজ আহমেদের হাতে ক্যাচ হন কেদার যাদব। ১৩ বল খেলে ৯ রান করেন তিনি।

এরপর চার-ছক্কার দারুণ সব শটে গ্যালারি মাতিয়ে ফেলেছিলেন হার্দিক পান্ডিয়া। কিন্তু দুঃখজনকভাবে রান আউট হয়ে সাজঘরে ফিরে যান তিনি। ৪৩ বল খেলে চারটি চার ও ছয়টি ছক্কার সাহায্যে ৭৬ রান করে সাজঘরে ফিরেন তিনি। ইনিংসের ২৮তম ওভারে জুনায়েদ খানের বলে বাবর আজমের হাতে ক্যাচ হন রবীন্দ্র জাদেজা। ২৬ বল খেলে ১৫ রান করেন তিনি।

২৯তম ওভারে উইকেটরক্ষকের হাতে ক্যাচ বানিয়ে রবীচন্দ্রন অশ্বিনকে ফিরিয়েন দেন হাসান আলী। ৩১তম ওভারে একইভাবে জ্যাসপ্রীত বুমরাহকে ফেরান হাসান আলী। ইনিংস শেষে ব্যক্তিগত ১ রানে অপরাজিত থাকেন ভুবনেশ্বর কুমার।

আইসিসি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির ফাইনাল ম্যাচে আজ টস জিতে পাকিস্তানকে ব্যাটিংয়ে পাঠায় ভারত। পাকিস্তান ব্যাটিংয়ে নেমে নির্ধারিত ৫০ ওভারে চার উইকেট হারিয়ে ৩৩৮ রান সংগ্রহ করে পাকিস্তান।

দলের পক্ষে ফখর জামান ১১৪, আজহার আলী ৫৯, বাবর আজম ৪৬, মোহাম্মদ হাফিজ ৫৭ ও ইমাদ ওয়াসিম ২৫ রান করেন। ভারতের পক্ষে ভুবনেশ্বর কুমার ১টি, হার্দিক পান্ডে ১টি, কেদার যাদব ১টি করে উইকেট নেন।

সংক্ষিপ্ত স্কোর

ফল: ১৮০ রানে জয়ী পাকিস্তান

পাকিস্তান ইনিংস: ৩৩৮/৪ (৫০ ওভার)

(আজহার আলী ৫৯, ফখর জামান ১১৪, বাবর আজম ৪৬, শোয়েব মালিক ১২, মোহাম্মদ হাফিজ ৫৭*, ইমাদ ওয়াসিম ২৫*; ভুবনেশ্বর কুমার ১/৪৪, জ্যাসপ্রীত বুমরাহ ০/৬৮, রবীচন্দ্রন অশ্বিন ০/৭০, হার্দিক পান্ডিয়া ১/৫৩, রবীন্দ্র জাদেজা ০/৬৭, কেদার যাদব ১/২৭)।

ভারত ইনিংস: ১৫৮ (৩০.৩ ওভার)

(রোহিত শর্মা ০, শিখর ধাওয়ান ২১, বিরাট কোহলি ৫, যুবরাজ সিং ২২, মহেন্দ্র সিং ধোনি ৪, কেদার যাদব ৯, হার্দিক পান্ডে ৭৬, রবীন্দ্র জাদেজা ১৫, রবীন্দ্রন অশ্বিন ১, ভুবনেশ্বর কুমার ১*, ভুবনেশ্বর কুমার ১; মোহাম্মদ আমির ৩/১৬, জুনায়েদ খান ১/২০, মোহাম্মদ হাফিজ ০/১৩, হাসান আলী ৩/১৯, শাদব খান ২/৬০, ইমাদ ওয়াসিম ০/৩, ফখর জামান ০/২৫)।

প্লেয়ার অব দ্য ম্যাচ: ফখর জামান (পাকিস্তান)

গোল্ডেন ব্যাট: শিখর ধাওয়ান (ভারত)

গোল্ডেন বল: হাসান আলী (পাকিস্তান)

প্লেয়ার অব দ্য টুর্নামেন্ট: হাসান আলী (পাকিস্তান)

Loading...
Loading...
Loading...

Check Also

মেসি আজ খেলবেন, তবে তার জার্সিতে নাম থাকবেনা, থাকবে যে লেখা

x Loading... Loading... Loading... কিছুদিন আগেই বার্সেলোনা হামলা চালায় সন্ত্রাসীরা। আর সেই হামলায় নিহত হয় …