Thursday , August 16 2018
Home / খেলাধুলা / বাংলাদেশের সামনে দারুণ সুযোগ

বাংলাদেশের সামনে দারুণ সুযোগ

বাংলাদেশ বনাম ওয়েস্ট ইন্ডিজের মধ্যকার ৩য় ও শেষ টি-২০ মাঠে প্রথমে ব্যাট করছে টাইগাররা। আগের দুই ম্যাচে ১-১ সমতা থাকায় আজ যে দল জিতবে, সিরিজ তার। তাই বিশ্ব সেরাদের সিরিজ হারানোর সুবর্ণ সুযোগ এখন বাংলাদেশের সামনে।

বাংলাদেশের ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও আমেরিকা সফর শেষ হতে যাচ্ছে। তার আগে দারুণ এক সাফল্যের সুযোগ তাদের সামনে। ওয়ানডের পর টি-টোয়েন্টি সিরিজ জয়ের হাতছানি পাচ্ছেন সাকিব আল হাসানরা। এমন সুযোগ সামনে রেখে তৃতীয় ও শেষ ম্যাচে টস জিতে ব্যাট করতে নেমে দুর্দান্ত শুরু হয়েছে তাদের। দ্রুততম ফিফটি পেয়েছে বাংলাদেশ।

এমন শুরুর পথ দেখানো লিটন দাসও করেছেন হাফসেঞ্চুরি। বাংলাদেশকে শক্ত অবস্থানে রেখে বিদায় নিয়েছেন তিনি। তার অসাধারণ ব্যাটিংয়ে ১১ ওভারে ৪ উইকেটে ১০২ রান করেছে বাংলাদেশ।

প্রথম বলেই লিটন মারেন বাউন্ডারি, প্রথম ওভারে আসে ৮ রান। দ্বিতীয় ওভারে বাংলাদেশের এই ওপেনার দুটি ছয় ও একটি চারে যোগ করেন ১৭ রান। চার-ছয়ের মার ছিল তামিমের ব্যাটেও। দুজন সমানতালে ক্যারিবিয়ান বোলারদের ওপর চড়াও হয়েছেন। মাত্র ৩.৪ ওভারে দল ৫০ রানের ঘরে পৌঁছায়। বাংলাদেশের জন্য এটি ছিল দ্রুততম হাফসেঞ্চুরি।

বিপজ্জনক হয়ে ওঠা এ জুটি ভাঙেন ক্যারিবিয়ান অধিনায়ক কার্লোস ব্র্যাথওয়েট। পঞ্চম ওভারের চতুর্থ বলে তামিমকে কেসরিক উইলিয়ামসের ক্যাচ বানান তিনি। ১৩ বলে ৩ চার ও ১ ছয়ে ২১ রানে আউট হন বাঁহাতি ওপেনার। মাত্র ৩০ বলে ৬১ রানের ঝড়ো জুটি ভাঙে তামিমের বিদায়ে।

দারুণ শুরুর পরও সৌম্য সরকার চাপমুক্ত হয়ে খেলতে পারেননি। পরের ওভারে কিমো পলের বলে রভম্যান পাওয়েলের ক্যাচ হন উঁচু শট খেলে। ৪ বলে ৫ রান করেন তিনি। প্রথম পাওয়ার প্লের ৬ ওভারে ২ উইকেটে ৭১ রান করে বাংলাদেশ।

আগের ১৪ ম্যাচে সর্বোচ্চ ৪৪ রান করা লিটন অষ্টম ওভারে পেয়ে যান প্রথম ফিফটি। ২৪ বলে ৫ চার ও ৩ ছয়ে হাফসেঞ্চুরি করেন এই ওপেনার। মুশফিকুর রহিম তার সঙ্গে ৩১ রানের জুটি গড়ে ফিরে গেছেন ব্র্যাথওয়েটের বলে। ১৪ বলে ১২ রান করে পেছনে দিনেশ রামদিনের হাতে বল তুলে দেন এই উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান। পরের ওভারে উইলিয়ামসের বলে অ্যাশলে নার্সের কাছে ক্যাচ হন লিটন। মাত্র ৩২ বলে ৬ চার ও ৩ ছয়ে ৬১ রান করেন তিনি।

দারুণ শুরুতে আরেকটি সিরিজ জয়ের হাতছানি পাচ্ছে টেস্টে একপেশে হারে হোয়াইটওয়াশ হওয়া বাংলাদেশে। ওয়ানডেতে দুর্দান্ত জয়ে শুরু হয়েছিল তাদের। যদিও দ্বিতীয় ম্যাচে দুর্ভাগ্যজনকভাবে হেরে যায় তারা। তৃতীয় ম্যাচে স্বাগতিকদের হারিয়ে ৯ বছর পর বিদেশের মাটিতে সিরিজ জয়ের স্বাদ পান তামিম-সাকিবরা।

টি-টোয়েন্টি সিরিজের শুরুতে ওই জয়ের আত্মবিশ্বাস কাজে লাগাতে পারেনি বাংলাদেশ। হেরে যায় তারা বড় ব্যবধানে। বিশ্ব চ্যাম্পিয়নদের কাছে হেরে শুরু করলেও থমকে যায়নি তারা। ফ্লোরিডার লডারহিলে ১২ রানের দারুণ এক জয়ে সিরিজে সমতায় ফিরেছে তারা। ২৪ ঘণ্টা পর আবারও একই ভেন্যুতে মুখোমুখি দুই দল। এবারও সিরিজ কার, সেই লড়াই। এমন সুযোগে উজ্জীবিত টানা ৫ ম্যাচ হারের পর টি-টোয়েন্টিতে প্রথম জয় পাওয়া বাংলাদেশ।

Check Also

হাথুরুর চেয়ে যেখানে নিজেকে আলাদা প্রমাণ করলেন রোডস

টিম বাংলাদেশের নতুন কোচ স্টিভ রোডস। ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরের আগেই টাইগারদের প্রধান কোচ হিসেবে নিয়োগ …