Monday , June 25 2018
Home / এক্সক্লুসিভ / ঝোপের ভিতর উঁকি দিতেই ঘাড়ের ওপর…, তারপরের ঘটনা হাড় হিম করার মতো

ঝোপের ভিতর উঁকি দিতেই ঘাড়ের ওপর…, তারপরের ঘটনা হাড় হিম করার মতো

বন দফতর আশ্বাস দিয়েছিল চিতাবাঘ নেই। কিন্তু মন মানতে চায়নি গ্রামবাসীদের। কারণ আশেপাশের তার পায়ের ছাপ স্পষ্ট দেখতে পাচ্ছিলেন তাঁরা। সন্দেহ দূর করতে নিজেরাই ঝোপের মধ্যে উঁকি দিয়ে দেখতে গিয়েছিলেন গ্রামের ২ যুবক। আর তাতেই ঘটল বিপত্তি। আশঙ্কা সত্যি করেই ঝোপের মধ্যে ঘাপটি মেরে বসে থাকা চিতাবাঘটি লাফিয়ে পড়ল এক্কেবারে ঘাড়ের ওপরে। তারপরের দৃশ্য রীতিমতো চিত্রনাট্যকেও হার মানাবে।

হাড় হিম দৃশ্যের সাক্ষী থাকল জলপাইগুড়ির হলদিবাড়ির পারমেখলিগঞ্জ। স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, গত কয়েকদিন ধরেই এলাকায় চিতাবাঘের উপদ্রুব বেড়েছে। মাঝেমধ্যেই গ্রামে ঢুকে পড়ছে একটি চিতাবাঘ। সোমবারই বাঁশ কাটতে গিয়ে চিতাবাঘের হানায় গুরুতর জখম হন এক যুবক। সেসময়ে প্রাথমিকভাবে পরিস্থিতি সামলে নেন গ্রামবাসীরাই। লাঠিসোটা নিয়ে চিতাবাঘটিকে তাড়িয়েদেন।

কিন্তু তারপরই খবর দেন বন দফতরে।চিতা বাঘটিকে যাতে তার নিজের আস্তানায় ফিরিয়ে দেওয়া হয়, তার আবেদন জানান গ্রামবাসীরা। মঙ্গলবার সকালে গ্রামে যান বনকর্মীরা। তাঁরা গ্রামের বিভিন্ন জায়গায় তল্লাশি চালান। কিন্তু চিতাবাঘের খোঁজ পাননি তাঁরা। তাতেই বনকর্মীরা ধরে নেন, চিতাবাঘটি জঙ্গলে ফিরে গিয়েছে। কিন্তু বনকর্মীদের দাবি মানতে নারাজ গ্রামবাসীরা।

নিজেরাই ফের ঝোপগুলি খুঁজতে থাকেন। সেই দলে ছিলেন অতুল রায় ও লাল্টু রায় নামে বছর ২৭-এর দুই যুবকও। ঝোপের মধ্যে মুখ বাড়িয়ে খুঁজতে গিয়েই আচমকাই বেরিয়ে পড়ে চিতাবাঘটি। অতুল ও লাল্টুর গায়ে লাফিয়ে পড়ে সে। হাতে থাকা লাঠি এলোপাথাড়ি চালাতে থাকেন দুই যুবক। তাতেই ফের ঝোপের মধ্যে ঢুকে পড়ে চিতাবাঘটি।

চিতাবাঘের থাবার গুরুতর আহত হয়েছেন অতুল ও লাল্টু। তাঁদের হলদিবাড়ি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। দীর্ঘক্ষণ তল্লাশির পর ঘুমপাড়ানি ওষুধ দিয়ে চিতাবাঘটিকে কাবু করেন বনকর্মীরা। গ্রামে থেকে তাকে নিয়ে যাওয়ার সময়ে ফের লাঠি নিয়ে চিতাবাঘটিকে মারেন গ্রামবাসীরা। পরে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে এনে চিতাবাঘটিকে সেখান থেকে নিয়ে যান বনকর্মীরা।-জিনিউজ

Check Also

কাঁদলেন-হাসলেন মুশফিক

মুশফিকুর রহিম সুযোগ পেলেই অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়ান। অসহায় মানুষকে মনের অন্তরতল থেকে জানান সহমর্মিতা। …