Friday , September 22 2017
Home / ধর্ম ও জীবন / আজ পবিত্র হজ

আজ পবিত্র হজ

x
Loading...
Loading...
Loading...

‘লাব্বাইক আল্লাহুম্মা লাব্বাইক, লাব্বাইক লা শারিকা লাকা লাব্বাইক, ইন্নাল হামদা ওয়াননি’ মাতা লাকা ওয়ালমুলক লা শারিকা লাক….মধুধ্বনি-প্রতিধ্বনিতে পবিত্র আরাফাতের পাহাড় ঘেরা ময়দান ছাপিয়ে আকাশ-বাতাস মুখর ও প্রকম্পিত এখন।

আজ ৮ জিলহজ বৃহস্পতিবার সৌদি আরবে পবিত্র হজ। হজ পালনে এবার বাংলাদেশসহ বিভিন্ন দেশের ২০ লক্ষাধিক মুসল্লি­সমবেত হয়েছেন। সু-উচ্চকণ্ঠ নিনাদের তালবিয়ায় মহান আল্ল­াহ তায়ালার একত্ব ও মহত্ত্বের কথা বিঘোষিত হচ্ছে প্রতি অনুক্ষণ। ‘আমি হাজির। হে আল্ল­াহ! আমি হাজির। তোমার কোনো শরিক নেই। সব প্রশংসা ও নিয়ামত শুধুই তোমার। সাম্রাজ্য তোমারই। তোমার কোনো শরিক নেই। ’

শুরু হলো বিশ্ব মুসলিমের মহাসম্মিলন পবিত্র হজ। আরাফাতের আদিগন্ত মরু প্রান্তর এক অলৌকিক পুণ্যময় শুভ্রতায় ভরে উঠেছে। সফেদ-শুভ্র দুই খণ্ড কাপড়ের এহরাম পরিহিত হাজীদের অবস্থানের কারণে সাদা আর সাদায় একাকার। পাপমুক্তি আর আত্মশুদ্ধির আকুল বাসনায় ধর্মপ্রাণ মুসলমানরা ইসলামের অন্যতম প্রধান স্তম্ভ এই পবিত্র হজ পালন করেছেন।

ইসলাম ধর্মের ৫টি মূল স্তম্ভের একটি হচ্ছে হজ। আর এই হজের সবচেয়ে বড় আনুষ্ঠানিকতা আজ। আজ সারাদিন মুসল্লিরা আরাফাতের ময়দানে অবস্থান করবেন। তারা মহান রাব্বুল আলামিনের কাছে নিজের উপস্থিতি জানান দেবেন এবং পাপমুক্তির আকুল বাসনায় আরাফাতের ময়দানে সমবেত হবেন। সূর্যোদয় থেকে সূর্যাস্ত পর্যন্ত তারা এখানে অবস্থান করবেন; ইবাদত-বন্দেগি করবেন। মসজিদে নামিরাহ থেকে হজের খুতবা দেওয়া হবে।

যারা হজে এসে অসুস্থতার জন্য হাসপাতালে চিকিৎসাধীন, তাদেরও অ্যাম্বুলেন্সে আরাফাতের ময়দানে স্বল্প সময়ের জন্য নেওয়া হবে। বুধবার সারাদিন হাজিরা মিনায় অবস্থান করার পর আজ বৃহস্পতিবার ফজরের নামাজ আদায় করে তারা রওনা হবেন আরাফাতের ময়দানের উদ্দেশে, যে ময়দানে মহানবী হজরত মুহাম্মদ (সা) বিদায় হজের ভাষণ দিয়েছিলেন।  সাদা ইহরাম বাঁধা অবস্থায় লাখ লাখ হাজির পদচারণায় আরাফাতের ময়দান আজ পরিণত হবে এক সফেদ সমুদ্রে।

সন্ধ্যায় হাজিরা মুজদালিফার উদ্দেশে আরাফাতের ময়দান ত্যাগ করবেন। মুজদালিফায় পৌঁছে আবার এক আজানে আদায় করবেন মাগরিব ও এশার নামাজ। সেখান থেকে জামারায় নিক্ষেপের জন্য ছোট পাথর সংগ্রহ করবেন। মুজদালিফায় খোলা আকাশের নিচে রাতযাপন করবেন তারা।

আগামীকাল শুক্রবার ৯ জিলহজ সূর্যোদয়ের পর জামারায় পাথর নিক্ষেপের জন্য রওনা দেবেন মুসল্লিরা। সূর্য পশ্চিম দিকে হেলে যাওয়ার আগে জামারাতুল আকাবায় ৭টি পাথর নিক্ষেপ করা হবে। এরপর তারা আল্লাহর সন্তুষ্টির আশায় পশু কোরবানি করবেন। এর পর মাথা মু-ন করে এহরাম খুলে অন্য পোশাক পরবেন। তারপর কাবাঘর তাওয়াফ এবং সাফা-মারওয়ায় সাত চক্কর শেষ করে তারা ফের মিনায় ফিরে যাবেন।

আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমের খবরে সংশ্লিষ্টদের বরাত দিয়ে বলা হয়েছে, হজের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে সব ধরনের প্রস্তুতি নিয়েছে সৌদি আরব সরকার। নিয়োগ করা হয়েছে ১ লাখ ২৮ হাজার নিরাপত্তাকর্মী। এবার বাংলাদেশ থেকে ১ লাখ ২৭ হাজারেরও বেশি মুসল্লি পবিত্র হজ পালন করতে সৌদি আরব গেছেন।

Loading...
Loading...
Loading...

Check Also

নামাজের মধ্যে অজু ভাঙলে কী করব?

x Loading... Loading... Loading... প্রশ্ন : নামাজের ভেতর অনেক সময় অজু ভেঙে যায়। তখন কি …